হোম / ভিন্ন জগৎ / গাইবান্ধায় সবজির দাম দ্বিগুণ

গাইবান্ধায় সবজির দাম দ্বিগুণ

নুর মো. খালেকুজ্জামান, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :

গাইবান্ধা সদর উপজেলায় সবজির দাম দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। কাঁচা মরিচ ১৬০, সিম ৮০ ও বেগুন ৫০ টাকা। অতিবৃষ্টতে ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় সবজির গাছ পঁচে গেছে। চাহিদার তুলনায় যোগান কম হওয়ায় বাজারে সবজির প্রচুর সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এ সুযোগে ব্যবসায়ীরা দ্বিগুণ দামে সবজি বিক্রি করছে। ক্রেতারা হিমসিম খাচ্ছে। প্রবল বর্ষণে সবজি চাষীদের সর্বনাশ হয়েছে।

বছরের শুরুতে সবজির ভাল ফলন হয়েছিল। দামও ছিল ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে। কিন্তু এবার অতিবৃষ্টির ফলে জলাবদ্ধতার কারনে সবজির ক্ষেত পঁচে গেছে। তেমন ফসল পাওয়া যাচ্ছে না। বাজারে সবজির সঙ্কট তাই দাম কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন। জলাবদ্ধতায় সবজি ক্ষেত তলিয়ে যাওয়ায় গাছ পচে যাওয়ায় চাষীদের ব্যাপক সর্বনাশ হয়েছে।

সরেজমিনে কয়েকটি হাট ঘুরে দেখা গেছে, কাঁচা মরিচ ১৮০, সিম-১৫০ বেগুন ৫০ লাল শাক ৪০-৫০, করলা ৬০-৭০, বরবটি ৫০-৬০, মিষ্টি কুমড়া ৩৫-৪০, পোটল ৩৫-৪০, শসা ৪০- ৫০, চিচিঙ্গা ৪০-৫০ ও মুলা ৪০-৫৫ টাকা কেজি এবং এক কেজি ওজনের ছোট লাউ ৭০-৮০, দের কেজি ওজনের বড় লাউ ৯০-১০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এ সকল সবজি একমাস পূর্বেও দুই ভাগের একভাগ দামে বিক্রি হয়েছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, গ্রামাঞ্চল থেকে কৃষকরা সবজি নিয়ে আসছে না। যা নিয়ে আসছে তা দিয়ে চাহিদা পূরণ হয় না। তাই সবজির দাম দ্বিগুণ বেড়েছে। সদর উপজেলা কৃষি অফিসার এ কে এম সাদেকুল ইসলাম জানান, বৃষ্টির পানিতে সবজির ক্ষেত তলিয়ে গাছ পঁচে গেছে। এতে সবজির উৎপাদন খুবই কম। ফলে সবজির সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

আরও দেখুন

rokomari-vorrta-

২২ পদের মজাদার সব ভর্তার রেসিপি

অনলাইন ডেস্ক: ২২ পদের মজাদার সব ভর্তার রেসিপি – বাঙ্গালীদের কাছে ভর্তা অনেক জনপ্রিয় একটা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

>
Facebook