হোম / Uncategorized / সাভারে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

সাভারে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

সাভার প্রতিনিধি:

সাভারে মাজেদা খাতুন (২৫) নামের একজন গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি আড়াল করতে লাশের গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে স্বামী জসিম উদ্দিনের (৩৫) বিরুদ্ধে।

গতকাল রাতে সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুরের অদূরে বাগবাড়ী এলাকায় নিহতের স্বামীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে স্বামী জসিম উদ্দিন পলাতক।

নিহত গৃহবধূ মাজেদা খাতুনের বাবা শফিউদ্দিন জানান, তিনি কেরানীগঞ্জের বেউতা এলাকায় বসবাস করেন। প্রায় আট বছর আগে সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুরের অদূরে বাগবাড়ী এলাকার কানাই ওরফে কানু বেপারীর ছেলে জসিমউদ্দিনের সঙ্গে তার মেয়ে মাজেদা খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই জসিম তার মেয়েকে কারণে-অকারণে মারধর করতো। এ ব্যাপারে জসিমের সঙ্গে  তিনি বিভিন্ন সময় কথা বললেও জসিমের কোনও পরিবর্তন হয়নি।

গতকাল রাত ১০টার দিকে জসিম তার দুই ভাই মোহাম্মদ আলী (৪২) ও আহম্মদ আলীসহ (৪০) স্থানীয় লিটন (৪৩), দুলাল (৩০) এবং আসাদউল্লাহ ওরফে জুয়েল (২৫) মাজেদাকে মারপিট করে। একপর্যায়ে জসিম মাজেদাকে গলা টিপে হত্যা করে ঘটনাটি আড়াল করতে মাজেদার গলায় ওড়না পেঁচিয়ে নিজ ঘরে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান।

সেখানে গিয়ে মেয়েকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে তিনি সাভার মডেল থানা পুলিশে খবর দিলে রাতেই পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে আজ সকালে পুলিশ লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এই দম্পতির অয়ন নামে পাঁচ বছরের একটি সন্তান রয়েছে। ঘটনার পর ওই শিশু সন্তানকে নিয়ে জসিম পালিয়ে গেছে।

সাভার মডেল থানার এসআই মামুন মোল্লা জানান, নিহতের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। নিহতের স্বামীকে আটক করতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চলছে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা সাভার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। জসিম মাদকাসক্ত ছিলেন  বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী। এ নিয়ে স্বামী- স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। পারিবারিক ঝগড়াকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি ঘটেছে বলে ধারণা করছেন তিনি।

আরও দেখুন

rowmari news & picture 27-09-17

রৌমারীতে আমন চারা সংকট, হতাশায় কৃষক

মাজহারুল ইসলাম, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: রৌমারীতে আমন ধানের চারা সংকটে চরম হতাশায় পড়েছেন কৃষক। বন্যার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

>
Facebook