সর্বশেষ সংবাদ
রোহিঙ্গাদের নিয়ে জাতিসংঘে বৈঠক করবে বাংলাদেশ-চীন-মায়ানমার পুরুষদের ঘরে ডেকে এনে ‘নগ্ন’ করে ছবি তুলে ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের অর্থ আদায়, আটক ৪ লক্ষ্মীপুরে পরিবারের সদস্যদের বেঁধে রেখে দুই বোনকে ধর্ষণ! প্রথম নারী সংবাদ পাঠিকা পেল সৌদি বাবার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ কন্যার! শ্বশুরকে গাছে বেঁধে রেখে পুত্রবধূকে নগ্ন করে মারধর ও যৌনাঙ্গে লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে নারকীয় অত্যাচার! আওয়ামী লীগ আগেই জনগণকে ছেড়ে দিয়েছে: রিজভী পাঁচ দিনের সফরে কাল কিশোরগঞ্জ যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি এক দশক ধরে বাংলাদেশের অর্থনীতি সাবলীল গতিতে এগিয়ে চলছে: অর্থমন্ত্রী ঋণের সুদের টাকা দিতে না পারায় ছাত্রদল নেতা লাথিতে গৃহবধূর গর্ভপাত!
হোম / ক্রাইম সংবাদ / সারাদেশে চলছে মাদক বিরোধী অভিযান নিমূল হচ্ছেনা মাদক ব্যবসায়ীরা
madok-pic

সারাদেশে চলছে মাদক বিরোধী অভিযান নিমূল হচ্ছেনা মাদক ব্যবসায়ীরা

স্টাফ রিপোর্টার, ইদ্রিস মাদবর:

সারাদেশে চলছে মাদক বিরোধী অভিযান তার পরও নিমূল হচ্ছেনা মাদক ব্যবসায়ীরা্  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন বিদ্যমান আইনে কোন ব্যক্তির দখলে মাদকদ্রব্য পাওয়া না গেলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের সুযোগ কম। এই জন্য মাদক ব্যবসায় জড়িত মাষ্টারমাইন্ডরা  সহযেই পার পেয়ে যায়।

তাই মাদক ব্যবসায় পৃষ্টাপোষকতাকারী ও মাদকের গডফাদারসহ মাদক সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠর আইন প্রয়োগের লক্ষ্যে মাদক দ্রব্য আইন ২০১৮ প্রনয়ন করা হচ্ছে । আইনে মাদক ব্যবসায় পৃষ্ঠপোষকতাকারী ও মাদকের গডফাদারসহ মাদক সিন্ডিকেট চক্রকে সর্বচ্চ শাশ্তি স্বরুপ মৃত্যুদন্ডের প্রস্তাব করা হচ্ছে।

মাদকের উপর এতো কঠর ব্যবস্থা নেওয়ার পরও বন্ধ হচ্ছেনা মাদক ব্যবসা। রাজধানীর মিরপুর মডেল থানা ও দারুস সালাম থানা এবং শাহ্ আলী থানাধীন এলাকায় বিশাল মাদকের সিন্ডিকেট রয়েছে।

মিরপুর মডেল থানা:

এর মধ্য মিরপুর মডেল থানা এলাকায় পশ্চিম শেওড়াপাড়ায় আয়াবা ব্যবসায়ী আক্তার, ফেন্সী ব্যবসায়ী মামুন, ফয়সার ও জসিম । বড়বাগের রাজিব, হাসান, বারেক।

শাহ্ আলীবাগ জনতা হাইজিংয়ের পুলিশের সোর্স  বিশু ও তার ছেলে, মালেক, শিপন। পাইকপাড়া জোনাকি রোডের  মাহি, সাব্বির, বাশার, হাফিজ, শামিম, পুরিশের সোর্স মিলন, মনু ও তার স্ত্রী, তাল ফারুক, শাকিল, রিফাত ও শিফাত। শাহ্ আলীবাগ বউ বাজারের ফরিদ, বকুলি, জব্বার, মুক্তা। হাবুলের পুকুর পাড়ের পুলিশের সোর্স  সুন্দর পলাশ, হেমায়েত, কালা বাবু্ ।

উত্তর পীরেরবাগের আব্দুর রশিদ, লিখন, রাজু , রাসেল, মাইকের দোকানের ভান্ডারী।অলিমিয়ার ঠেক এর মজিদ, আমতলার রনী।মোল্ল্যাপাড়ার আব্দুল্লা, ছামাদ, মুন্না। মধ্যপাইক পাড়ার জিকু ও তার স্ত্রী নাদিরা ( ইয়াবা ডিলার), গোলাপ, পানির পাম্প গলীর সুমন। বিহারী পাড়ার ছক্ক রানা ( ইয়াবা ডিলার), খাইরুল, মুন্না, রবিন, জুয়েল, সুমন। দক্সিন পাইক পাড়ার নাদিম, রাজু, নয়ন, পারভেজ ও তার ছোট ভাই পলাশ, প্রিন্স, ডালিয় ও তার স্বামী্।  কল্যানপুর ১২নং রোডের শামিম, কল্যানপুর এসপি রোডের সজল,কল্যানপুর পুড়া বস্তির হক্কা, জাকির ( গামছা জাকির), হাওয়া ও তার মা। সনি সিনেমা হলের পিছনে বাবু ও তার ছোট ভাই জাকির, মনির, ইউসুফ। মিরপুর মডেল থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দাদন ফকির আসারপর হইতে অর্তএলাকায় মাদকের ব্যবসা রমরমা চলছে। এবং কিছু অসাধু  পুলিশ কর্মকর্ত মাদক ব্যবসায়ীদের ধরে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিয়ে ছেড়ে দিচ্ছে, এতে করে পুলিশের পকেট ভরছে, আর যুবসমাজকে করছে দিচ্ছে পঙ্গু।

দারুসালাম থানা:

দারুসালাম থানা এলাকার দক্ষিন বিশিলের ৭নং রোডের মাদবর পট্টির লন্ডি বাবু, সুমন ও তার মা, মোতালেব, শান্তি, ২য় কলোনীর ছোরাব, আক্তার, আনোয়ার, বেকারীর রাসেল, ১ম কলোনীর শফিক, কসাই বাবু, পলাশ। আজ থেকে ২৪/২৫দিন আগে মাদক ব্যবসায়ী আক্তারকে প্রশাসন ধরলেও বিশ হাজার টাকার বিনিময়ে পার পেয়ে যায় আক্তার।

লালকুটির বড় মসজিদের পিছনে নাটা জাহাঙ্গীর, খোরসেদ ভান্ডারী। বসুপাড়ার, মিজান, গাবতী টিসি পাম্পের আপছু, বাদল। জহুরাবাদের জাহানারা ও তার স্বামী মুক্তার। লাল কুটির মনির, দেলা ও তার স্ত্রী, টেলারবাগ এলাকায় পলাশ, আসমাইল, কাল্লু ও তার বোন, জুলহাস, টোলারবাগ এলাকায় চুরি ছিনতাই ফিটিংবাজি থেকে শুরু করে বর্তমানে হিরোইন ও ইয়াবা ব্যবসা করে যাচ্ছে সোহাগ ও সবুজ দুই ভাই।

শাহ্ আলী থানা:

শাহ্ আলী থানাধীন এলাকার এইচ ব্লকের ৭নং রোডের লালমাটি বস্তিতে রয়েছে আলমগির ও তার স্ত্রী রাসেল, শাহিনুর।

এছাড়া অর্তগোদারাঘাট এলাকায় বিশাল মাদকের সিন্ডিকেট রয়েছে, এদেরকে মদত দিয়ে যাচ্ছে এলাকার প্রবাভশালী ব্যক্তি ও প্রশাসনের কিছু সংখ্যক অসাধু কর্মকর্তা।

 

 

চলমান……………………………….

আরও দেখুন

17341

আওয়ামী লীগ আগেই জনগণকে ছেড়ে দিয়েছে: রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগ আগেই জনগণকে ছেড়ে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Facebook